কাল বারসাত স্টেডিয়ামে কোলকাতা লীগের ম্যাচে বিশ্বজিত ভট্টাচার্যের মহামেডান স্পোর্টিং এর মুখোমুখি হয়েছিল লীগ টেবিলের সপ্তম দল কোলকাতা কাস্টমসের বিরুদ্ধে। এই ম্যাচে ১-০ এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে কাস্টমসের কাছে আটকে গেল ব্লাক পান্থার্সরা। পড়ে নিন এই ম্যাচের ম্যাচ রিপোর্ট… 

ম্যাচ রিপোর্টের শুরুতেই আমরা Khel Now এর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানাই সদ্য প্রয়াত মহামেডান স্পোর্টিং সভাপতি সুলতান আহমেদকে। তার আকস্মিক প্রয়ানে আমরা গভী্রভাবে শোকাহত এবং তার পরিবারের প্রতি আমাদের সমবেদনা রইল।

পরের সপ্তাহে মিনি ডার্বির ড্রেস রিহার্সালটা একদমই ভালো হল না বিশ্বজিত ভট্টাচার্যের দলের। মোহনবাগান ম্যাচের আগের ম্যাচে কোলকাতা কাস্টমসের কাছে আটকে গিয়ে চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই থেকে কার্যত ছিটকে পড়ল সাদা-কালো ব্রিগেড। দলকে এগিয়ে দিয়েও জেতাতে পারলেন না গত আই লীগ এর সর্বচ্চো গোলদাতা ডিপান্ডা ডিকা। ম্যাচের ফলাফল ১-১। উলটোদিকে কাস্টমসের হয়ে গোল ধীমান সিনহার।


Also Read


সোমবারই প্রয়াত হয়েছেন ক্লাবের সভাপতি সুলতান আহমেদ। তাঁর জায়গা কে নেবেন? সারাদিন সেই নিয়েই জল্পনার মাঝেই কাল ম্যাচ খেলতে নামে সাদা কালো ব্রিগেড। সুলতান আহমেদকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে হাতে কালো আর্ম ব্যান্ড পড়ে নেমেছিলেন মহামেডান ফুটবলাররা। টানা তিন ম্যাচে জয়ের পর ছন্দে ছিল বিশ্বজিত ভট্টাচার্যের দল, কিন্তু কাস্টমসের সঙ্গে এদিনের খেলায় যেন আগের ম্যাচের সেই ছন্দই উধাও হয়ে গিয়েছিল তাদের খেলায়। গোটা ম্যাচে একাধিক সুযোগ নষ্ট এবং কাস্টমস গোলকিপার প্রিয়ান্ত সিংয়ের অনবদ্য কিপিংয়ের সৌজন্যে মাঠেই দু’পয়েন্ট ফেলে আসতে হল মহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে।

বাকি ম্যাচগুলো সেভাবে দাপট না দেখাতে পারলেও আজ যেন এক অন্য মেজাজে ম্যাচ শুরু করেছিল কাস্টমস দল। শুরু থেকেই আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে খেলা জমে ওঠে। কিন্তু ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় শেষ হাসি হাসতে পারেনি কোনও দলই। এরই মধ্যে মহামেডান এর বক্সে কাস্টমস প্লেয়ার উজ্জ্বল এর শট একজন ডিফেন্ডারের হাতে লাগলে কাস্টমস পেনাল্টীর আবেদন করেছিল, কিন্তু সেই আবেদন নাকচ করে দেন রেফারি। এরপর বেশ কয়েকটা ভালো সেভ করেন দু দলের গোলরক্ষকই। ২১ মিনিটে গোলকিপারকে সামনে পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন ডিপান্ডা।

এরপর ম্যাচের ৩০ মিনিটে কাস্টমস বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের ইন্সটেপে গোল লক্ষ করে একটি দারুন শট নিয়েছিলেন ডিপান্ডা ডিকা কিন্তু নিজের ডানদিকে শুন্যে ঝাপিয়ে পড়ে অবধারিত গোল বাচিয়ে দেন কাস্টমস গোলকিপার প্রিয়ন্ত সিং। শেষে প্রথমার্ধের একদম অন্তিম মুহূর্তে ফ্রি কিক থেকে দুরন্ত গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ডিকা। এই নিয়ে এইবারের কোলকাতা লীগে ছয় নম্বর গোল হয়ে গেল গতবারের আই লীগে সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার বিজয়ীর, বর্তমানে তিনিই কোলকাতা লীগের সর্বোচ্চ স্কোরার।

তবে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি মহামেডান এর এই লীড।

৫৭ মিনিটে কাস্টমসকে সমতায় ফেরান ধীমান। মহামেডান গোলরক্ষক শংকর বল ফিস্ট করলে বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত ভলিতে গোল করে ফলাফল ১-১ করেন তিনি। এরপর কোচের নির্দেশে জয়ের জন্য ঝাঁপায় মহামেডান। কিন্তু সেই প্রিয়ান্তের তৎপরতায় জয়ের গোলটি পায়নি সাদা-কালো ব্রিগেড। ম্যাচের বাকি সময়ে আধিপত্য থাকলেও জয়ের গোল পায়নি মহামেডান। জিতেন মুর্মু বেশ কয়েকটা সুযোগ নষ্ট করেন।

কালকের এই হারের ফলে ৫ ম্যাচের মধ্যে ৩টি জিতে এবং ১টি ড্র করে ১০ পয়েন্ট নিয়ে কার্যত লীগ জয়ের লরাই থেকে ছিটকে গেল তারা, এখন তাদের লীগ চ্যাম্পিয়ন হতে গেলে নিজেদের জেতার পাশাপাশি লক্ষ রাখতে হবে অন্যদের খেলার ফলাফলেও। তাদের পরবর্তী খেলা ৫ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে লীগ টেবিলের দু নম্বর এ থাকা দল মোহনবাগান।