রবিবাসরীয় নৈশালোকের আলোয় কালকের লড়াই ছিল লীগের সবথেকে শক্তিশালি দল মোহনবাগানের বিরুদ্ধে প্রথমবারের জন্যে কোলকাতা লীগে প্রতিনিধিত্ব করতে নামা পাঠচক্রের বিরুদ্ধে। এই ম্যাচে প্রথমে একটি গোল হজম করলেও দ্বিতীয়ার্ধে রাজত্ব করে ৫-২ এ পাঠচক্রকে উড়িয়ে দিল সবুজ-মেরুন জার্সিধারীরা। পরে নিন বিস্তারিত ম্যাচ রিপোর্ট……

গঙ্গাপারের ক্লাবে পা রাখার পর থেকেই বারবার  একটি কথা শুনে আসছেন বেটন কামো, তা হলো  টানা সাতবার কলকাতা লিগ জিতেছেচিরপ্রতিদ্বন্দ্বীরা কিন্ত নিজের দল শেষবার রানার্স পর্যন্তও হতে পারেনি। তবে কামো বোধহয় সেই কথাটি শুন্ব নিজ্বে মনেই জেদ নিয়ে ফেলেছেন বিষয়টি পাল্টানোর আর তারই প্রতিফলন ঘটল সোমবার নিজেদের মাঠে। একাই ৪ বার বিপক্ষের জালে বল জড়িয়ে দিয়ে যেন কামো বলে দিলেন চ্যাম্পিয়ন করাটাই লক্ষ তার। কামোর চারটি এবং ক্রোমার একটি গোলে ভর করেই ৫-২তে অনামী পাঠচক্রকে বধ করে  তিন পয়েন্ট ঝুলিতেভরল মোহনবাগান।

প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে পাঠচক্রকে একদম ছোটো বলা হলে ভুল বলা হবে ম্যাচের আগের দিনই এই কথা জানিয়েছিলেন মোহন কোচ শংকরলাল চক্রবর্তি, আর সেই কথা মাতায় রেখেই আজ দল সাজিয়েছিলেন তিনি। তবে পাঠচক্রকে ছোট বলাটাও ভুল হতো কারন তারা এই কোলকাতা লীগেই সদ্য মহামেডান এর মতো বর দলকে ৪-২ গোলে হারিয়ে দিয়েছিল।

Also Read: দুই বাঙালীর কাঁধে ভর করে সার্দানকে ৩ গোল দিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল সাদা-কালো ব্রিগেড!

সেই মহামেডান ম্যাচের ধারা বজায় রেখেই আজও ম্যাচের ১৫ মিনিটে ডান দিকের থেকে বাড়ান ক্রসে গোল করে পাঠচক্রকে এগিয়ে দেন ইন্ডিয়ান সুপার লীগে এটিকের প্রাক্তন প্লেয়ার নাদাং ভুটিয়া। যদিও তার পরে মোহনবাগানের হয়ে ক্রোমা-কামোর  মুহুর্মুহ আক্রমনে বোঝায় যাচ্ছিল গোল শোধ কেবল সময়ের অপেক্ষা। আর ঠিক তাই, গোল খাওয়ার ৯ মিনিটের মধ্যেই ক্রোমার বাড়ানো বল গোলে ঠেলে দিতে ভুল করেননি বেটন কামো।  গোল করে সিআর সেভেনের স্টাইলেসেলিব্রেশন করতে দেখা যায়  প্রাক্তন আইজল এফসি তারকাকে ৷ 

ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আরও আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে সবুজ মেরুন জার্সিধারিরা, মাঝমাঠে ক্রোমা-লিংডোআর উপরে কামোর নেতৃত্বে ম্যাচের দখল নেয় বাগান ব্রিগেড৷ ৪২ মিনিটে এই আক্রমণেরই ফসলই হলো ক্রোমার দ্বিতীয় গোল৷ কর্ণার থেকে চেস্টারের ভাসান বল ক্রোমাকামোকে দিলে আইভরি কোস্টের এই স্ট্রাইকার জালে রাখতে ভুল করেননি৷ ২-০ তে শেষ  হয় প্রথমার্ধের খেলা।

Also Read: শক্তিশালী পিয়ারলেসকে ৫ গোলের মালা পড়িয়ে আবার লী শীর্ষে ইস্টবেঙ্গল!

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথমেই গোলদাতা নাদংকে তুলে নিয়ে বিদেশি জুয়েল সানডেকে নামান পার্থ সেন৷ এর পর  দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হলে লিংডো-ক্রোমা জুটির আক্রমনে ক্রোমার নেওয়া একটী শট বারে লেগে ফিরে আসে। এরপর  ৫৯ মিনিটে পাঠচক্র ডিফেন্ডারদের ভুলে তৃতীয় গোল করেন ক্রোমা আগোগো৷ সন্তু সিংয়ের দুর্বল ক্লিয়ারেন্সসরাসরি  ক্রোমার পায়ে গেলে বুলেট শটে সেই বল সোজা গিয়ে আছড়ে পরে পাঠচক্রকের গোলে৷এরপর এই গোলের তিন মিনিটের মধ্যেই  ম্যাচের ৬২ মিনিটে নিজের তৃতীয় গোলটি করে ভিপি সুহের এবং সুরাবুদ্দিন আলির পরে ২০১৭ কোলকাতা লীগের তৃতীয় হাটট্রিক পূর্ন করেন বেটন কামো।

এরপরে আর ম্যাচে ফিরে আসতে পারেনি পাঠচক্র, যদিও ম্যাচের ৮২ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টিটি বাইরে মেরে নস্ট করেন পাঠচক্রের সানডে। এরপরে ৮৯ মিনিটে তার চতুর্থ গোলটি করেন মোহবাগানের কামো, খেলার ফলাফল দাঁড়ায় ৫-১। তবে এর পরে কোলকাতা লীগের ট্রেন্ড বজায় রেখেই অতিরিক্ত সময়ে পাঠচক্রের হয়ে ব্যবধান কমান জুয়েল সানডে। এরপরে রেফারি শেষ বাশি বাজিয়ে ৫-২ ফলাফলে ম্যাচের সমাপ্তি ঘোষনা করেন। 

আজ মাঠের ভিতরের মোহনবাগান খেলোয়াড়দের মতোই মাঠের বাইরের সমর্থকেরা ছিলেন উজ্বল। প্রতিদিনের মতো পাইরো শো ছাড়াও আজ গাল্যারীর এক বিশাল অংশ জুড়ে দেখা গেল সর্ব ধর্ম সংহতির বিশাল বিশাল ফ্লাগ। গ্যালারী থেকে দেওয়া তাদের এই বার্তাকে আমরা সাধুবাদ জানাই। কলকাতা লীগে মোহনবাগানে পরবর্তী ম্যাচ রবিবার ২৭শে আগস্ট, কোলকাতা কাস্টমস এর বিরুদ্ধে।