রবিবার বারাসাত বিবেকানন্দ স্টেডিয়ামে নৈশালোকের আলোয় সার্দান সমিতিকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দিয়ে কোলকাতা লীগে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখল মহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব! ব্লাক পান্থারদের হয়ে গোল তিনটি করেছেন শেখ ফৈজাজ (২) এবং জিতেন মুর্মু । পড়ে নিন ম্যাচের ম্যাচ রিপোর্ট……….

কোলকাতা লীগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাঠচক্রের কাছে ৪-২ গোলে লজ্জার হারের পর কলকাতা লিগে টানা দ্বিতীয় জয় মহমেডান স্পোর্টিং৷ রবিবার বারাসতের বিদ্যাসাগর ক্রীড়াঙ্গনে সংঘবদ্ধ ফুটবল খেলে সার্দান সমিতির বিরুদ্ধে তিন পয়েন্ট তুলে নিল সাদা-কালো ব্রিগেড৷ আজকের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখলেন দুই বাঙালী শেখ ফায়াজ এবং জিতেন মুর্মু৷ প্রথমার্ধে ফায়াজ এর গোলেই এগিয়ে যায় বিশ্বজিতের দল, জিতেনের পাস থেকে দ্বিতীয়ার্ধেও দুরন্ত হেডে দ্বিতীয় গোল করেন সেই ফায়াজ৷ জোড়া গোল করার সুবাদে ম্যাচের সেরাও হয়েছেন অনূর্ধ্ব ২৩ এই ফুটবলার৷আর টালিগঞ্জ ম্যাচের নায়ক ইস্টবেঙ্গলের ব্রাত্য জিতেন মূর্মূও এদিন গোল পেলেন এবং করালেন৷ তাঁর গোলেই ইনজুরি টাইমে ব্যাবধান ৩-০ করে মহমেডান স্পোর্টিং ক্লাব!

Also Read: শক্তিশালী পিয়ারলেসকে ৫ গোলের মালা পড়িয়ে আবার লী শীর্ষে ইস্টবেঙ্গল!

মহামেডান এই ম্যাচ যেন ছিল তাদের দ্বিতীয় ম্যাচের আকশন রিপ্লে।গত টালিগঞ্জ ম্যাচের মতো আজও ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন ফায়াজ৷  গত ম্যাচে আট মিনিটেই দুরন্ত গোলে ম্যাচের রঙ পাল্টে দিলেও  এদিন সার্দানের বিরুদ্ধে শুরু থেকে আক্রমনের রাস্তায় গেলেও প্রথম গোল পেতে সাদা কালো বাহিনীর বেশ কিছুটা অপেক্ষা করতে হয়৷ ম্যাচের ২০ মিনিটে  ডিফেন্ডার রিচার্ডের বাড়ানো বল ডান পায়ে রিসিভ করে আড়াআড়ি ইনসাইড কাটে বক্সের দিকে ঢুকে যান ফায়াজ, এর পরে বলটি তার শরীর থেকে একটু দুড়ে চলে গেলেও সার্দান ডিফেন্ডার ভুলে আবার চলে আসে তার পায়ে! এরপর আর ভুল করেননি ফায়াজ, বাঁ-পায়ের জোড়ালো শটে গোলকিপারকে পরাস্ত করে বল জালে জড়িয়ে দেন তিনি৷ এরপর দুদলই গোলের চেষ্টা করলেও গোলের দরজা খুলতে পারেনি কোন দলই, ১-০ ফলাফলেই শেষ হয় প্রথম পর্বের খেলা। 

Also Read: দশজনের রেলকে বেলাইন করে টেবিল টপার মোহনবাগান!

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই প্রতিআক্রমণে গিয়ে ব্যবধান বাড়ানোর চেস্টা করেন ইস্টবেঙ্গল এর জার্সিতে গত মরশুমের সিএফএল জয়ী জিতেন মূর্মূ, যদিও অল্পের জন্য লক্ষভ্রষ্ট হয় তার শট৷ এরপর ম্যাচের  ৫৫ মিনিটের জিতেন-ফায়াজের জুটিবদ্ধ আক্রমণে দ্বিতীয় গোল পায় সাদা কালো ব্রিগেড৷ জিতেন মূর্মূর বাড়ানো বল গ্রাউন্ডে বাউন্সিং হেড করে টালিগঞ্জ ম্যাচের প্রথম গোলের মতোই গোল করে ফলাফল ২-০ করেন ফায়াজ৷যদিও ম্যাচের শেষ দিকে অল্পের জন্য হ্যাটট্রিক মিস করেন ফায়াজ, দিবেন্দু(জুনিয়ার) এর বাড়ানো বল ধরে বিপক্ষের বক্সে গিয়েও শট গোল রাখতে পারেননি তিনি৷ আর আশ্চর্যের ট্রেন্ড ফলো করেই আজও অতিরিক্ত সময়ে তৃতীয় ও ম্যাচের শেষ গোলটি করেন জিতেন মুর্মু। ৯০ মিনিটে জিতেনের বাড়ানো বল বিপক্ষ গোলকিপারের হাতে লেগে জালে ঢুকে যায়৷ ৩-০ ফলাফলে রেফারি শেষ বাশি বাজিয়ে ম্যাচের পরিসমাপ্তি ঘোষনা করেন!

তবে টানা ২ ম্যাচ জেতার পরেও আই লিগের সর্বোচ্চ গেলাদাতা ডিকার ফর্ম কিন্ত সমর্থকদের সাথে কোচকেও চিন্তায় রাখবে৷ দ্বিতীয়ার্ধের ৮৫ মিনিটে সহজ সুযোগ পেয়ে সোজা গোলরক্ষকের হাতে মারেন ডিপান্ডা ডিকা! কোলকাতা লীগে বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্যের মহামেডান স্পোর্টিং এর পরবর্তী ম্যাচ শনিবার কল্যানী স্টেডিয়ামে রহিম নবির পিয়ারলেস এর বিরুদ্ধে!